পুলিশ সদস্যদের বিভিন্ন অপরাধে জড়িত থাকার বিষয়ে তদন্ত চলছে : আইজিপি

0
517

সম্প্রতি পুলিশ সদস্যদের বিভিন্ন অপরাধে জড়িত থাকার বিষয়ে তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক। আজ শনিবার দুপুরে সিলেটে একটি অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। শহীদুল হক বলেন, সম্প্রতি সময়ে বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজে জড়িত থাকার পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ উঠেছে তা তদন্ত চলছে। দোষী প্রমাণিত হলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, কোনো পুলিশ সদস্য যদি অপরাধ করে থাকে, তবে এটা তার ব্যক্তিগত অপরাধ। এ অপরাধের দায় পুলিশ বাহিনীর ওপর বর্তাবে না। যেসব পুলিশ সদস্য অপরাধ করছে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, বরখাস্ত করা হচ্ছে, তদন্তের পর অপরাধ প্রমাণিত হলে শাস্তি প্রদান করা হচ্ছে। কোনো পুলিশ সদস্যই আইনের উর্ধ্বে নয়। হিউম্যান রাইট্স অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি) প্রথমবারের মতো সিলেটে প্রবাসীদের অধিকার বিষয়ক ‘প্রবাসীদের অধিকার নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে প্রশাসনের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারের প্রথম সেশনে ‘হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশ (এইচআরপিবি)’-এর প্রেসিডেন্ট অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদের সভাপতিত্বে শহীদুল হক বলেন, ‘জনগণকে আরো বেশি করে সেবা দেওয়ার জন্য সারা দেশে কমিউনিটি পুলিশিংয়ের কমিটি গঠন করা হয়েছে। আইজিপি বলেন, সারাবিশ্বে জঙ্গিবাদের প্রসার লাভ করেছে। বাংলাদেশের পুলিশ জনগণের সহায়তায় জঙ্গিবাদ দাবিয়ে রেখেছে। পুলিশ জঙ্গিদের ধরছে, বিস্ফোরক উদ্ধার করছে। বাংলাদেশ নানা সীমাবদ্ধতার মধ্যেও জঙ্গিবাদ দমন করে এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিটি সেক্টরে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ অনেক সাফল্য অর্জন করেছে। শহীদুল হক আরো বলেন, দেশে প্রবাসী হেল্প ডেস্ক গঠন করা হয়েছে। ডেস্কের কার্যক্রম পুলিশ হেডকোয়ার্টার থেকে মনিটরিং করা হচ্ছে। প্রবাসীদের কষ্টার্জিত টাকায় দেশের উন্নয়ন হচ্ছে। এ জন্য প্রবাসীরা যেন মিথ্যে মামলায় হয়রানির শিকার না হন সেটা নিশ্চিতে এবং তাদের সকল সমস্যার সমাধানে সরকার আন্তরিক। আইজিপি বলেন, গত ৬ মাসে প্রবাসী ডেস্কে সরাসরি ২৬৯টি অভিযোগ জমা পড়েছে। এর মধ্যে ১৯৮টি নিষ্পত্তি করা হয়েছে। এ ছাড়া টেলিফোনের মাধ্যমে প্রায় ৭০০টি অভিযোগ জমা পড়েছে। এগুলোও নিষ্পত্তি করা হচ্ছে। f

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here