চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আয়োজনে ১৩ দিনের বই মেলা উদ্বোধন করলেন সিটি মেয়র

0
613

সামছুল আলম কমল, চট্রগ্রাম প্রতিনিধি:
ভিন্ন আঙ্গীকে বৃহৎপরিসরে “মাতৃভাষা বিকশিত হোক, বই হোক জীবনের আলো” এ শ্লোগানকে ধারন করে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নগরী’র শহীদ মিনার ও মুসলিম ইনষ্টিটিউট হল প্রাঙ্গন জুড়ে আয়োজিত ১৩ দিনের বই মেলা উদ্বোধন করা হয়। ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ খ্রি. বুধবার বিকেলে, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন ১৩ দিন ব্যাপি বই মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এসময় মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন জাতীয় সঙ্গীতের তালে তালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। সিটি কর্পোরেশনের পতাকা উত্তোলন করেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম, পরে মেয়র বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে দেন। সিটি কর্পোরেশনের বই মেলায় বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি ও চট্টগ্রাম সৃজনশীল প্রকাশক পরিষদসহ ঢাকা এবং চট্টগ্রামে প্রায় ৬৪ টি প্রকাশনা সংস্থা বই মেলায় অংশগ্রহন করে। এছাড়াও একুশে স্মারক সম্মাননা পদক প্রদান, সাহিত্যিকদের সাহিত্য পুরষ্কার প্রদান, চিত্রাংকনসহ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, স্কুল ও কলেজ শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শিশু-কিশোরদের নৃত্যানুষ্ঠান, লোক সঙ্গীত, নাটক, কবিগান, কবিতা ও ছড়া পাঠ, আবৃত্তি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চলচিত্র প্রদর্শন ইত্যাদি থাকবে। এ সময় প্যানেল মেয়র, অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন কমিটির আহবায়ক, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি নাজমুল হক ডিউক, সচিব রশিদ আহমদ, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মিসেস নাজিয়া শিরিন, মেয়রের একান্ত সচিব মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম সহ কাউন্সিলর ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। বই মেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবস ও অমর একুশে বই মেলা ২০১৬ আয়োজন কমিটি’র আহবায়ক, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি নাজমুল হক ডিউক, এতে প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। আলোচনা করেন, প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, মিসেস জোবাইরা নার্গিস খান, সচিব রশিদ আহমদ, স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মোহাম্মদ শফিউল আলম, মঞ্চে কাউন্সিলর সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু, হাসান মুরাদ বিপ্লব, গোলাম মোহাম্মদ চৌধুরী, মোহাম্মদ ইসমাইল বালী, গোলাম মোহাম্মদ জোবাইর, এইচ এম সোহেল, এস এম এরশাদ উল্লাহ, শৈবাল দাশ সুমন, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, জেসমিন পারভিন জেসি, ফেরদৌসী আকবর, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা মিসেস নাজিয়া শিরিন। উপস্থাপনায় ছিলেন বই মেলা কমিটির সদস্য সচিব মোহাম্মদ মঞ্জুরুল ইসলাম, প্রিমিয়ার কলেজের প্রিন্সিপ্যাল মোজাম্মেল হক ও সাহাবুদ্দিন মজুমদার, বইমেলা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সিটি মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ২০১৭ সন থেকে বাংলা একাডেমী’র সাথে সমন্বয় করে বিভিন্ন শ্রেনী ও পেশা’র অংশ গ্রহনে চট্টগ্রামে ঢাকার ন্যায় ০১ ফেব্রুয়ারি থেকে মাসব্যাপী মান সম্পন্ন একক বই মেলা’র আয়োজন করা হবে। তিনি বলেন, প্রকাশক, লেখক, কবি সাহিত্যিকদের অংশগ্রহনে সৃজনশীল আয়োজন হবে চট্টগ্রামে। বই মেলার এই আবেদন গ্রামে গঞ্জে পৌঁছে দেয়া হবে। তিনি বলেন, বই মনের দরজা খুলে দেয়, কুসংস্কার থেকে মুক্ত করে, জ্ঞাণের ভান্ডার সমৃদ্ধ করে, তিনি শিক্ষার্থী, শিক্ষক, বন্ধু বান্ধব, আতœীয় স্বজন সকলকে বই পড়তে ও কিনতে আগ্রহ সৃষ্টি করার উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, বই কিনে কেউ দেউলিয়া হয় না। বই এর মাধ্যমে অজানাকে জানা যায়, চিন্তার দরজা খুলে যায়, দুঃশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়, বই পড়ে একজন পূর্ণাঙ্গ মানুষে পরিণত হওয়া সম্ভব। মেয়র বলেন, ইতিহাস ও ঐতিহ্যর ধারক বাহক চট্টগ্রাম। ১৯৫২ সনে চট্টগ্রামে মহান একুশের প্রথম কবিতা রচনা করেন মাহবুব উল আলম চৌধুরী। ১৯৬৬ সনে চট্টগ্রাম থেকে বাঙালির বাঁচার দাবী ৬ দফা বঙ্গবন্ধু ঘোষনা করেন। জনাব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, ১৯৭১ সনে জাতির পিতার পক্ষে বাংলার স্বাধীনতা’র ঘোষনা কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে ২৬ মার্চ দ্বিপ্রহরে ঘোষনা করেন জননেতা এম এ হান্নান। তিনি বলেন, ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে চট্টগ্রামের সন্তান সূর্যসেন ও প্রীতিলতা’র অবদান ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ আছে। মেয়র বলেন, বিদ্যা সাগর, বঙ্কিম, মাইকেল, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, প্রমথ চৌধুরী’র হাত ধরে বাংলা ভাষার সূদৃঢ় ভিত্তি গড়ে উঠেছে। আকাশ সংস্কৃতির দাপটে বাংলা ভাষা চর্চা অনেকাংশে স্থবির হতে চলেছে। বিকৃত রোধে সচেতনতার উপর গুরুত্বারোপ করেন মেয়র। তিনি বলেন, মায়ের ভাষা বাংলাকে প্রান দিয়ে ভালবাসতে হবে এবং প্রমিত বাংলা ভাষার চর্চা করতে হবে।
আগামীকাল ১৮ফেব্রুয়ারি বৃহষ্পতিবার বই মেলা মঞ্চে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৩ টা থেকে আইয়ুব বিবি সিটি কর্পোরেশন স্কুল এন্ড কলেজ এর শিক্ষার্থীরা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করবেন। বিকেল ৫টা থেকে অনুষ্ঠিতব্য আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করবেন ৪ নং চান্দগাঁও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন খালেদ সাইফু, এতে প্রধান অতিথি‘র আসন অলংকৃত করবেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধূরী, প্রধান আলোচক থাকবেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. সেলিম মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর। আলোচনা করবেন ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ সাহেদ ইকবাল বাবু, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কফিল উদ্দিন খান, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আজম, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস জেসমিন পারভীন জেসি। আলোচনার পর দৃষ্টি’র আয়োজনে বিতর্ক প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here