খুলনা বিভাগের প্রথম বাল্যবিবাহমুক্ত জেলা মেহেরপুর আবারও ইতিহাসের সাক্ষি হয়ে গেল :সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম

0
326

মেহেরপুর প্রতিনিধি:

১৭ এপ্রিলের মতো আজ ২৭ ফেব্র“য়ারিও মেহেরপুরের ইতিহাসে একটি ঐতিহাসিক দিন। খুলনা বিভাগের মধ্যে প্রথম বাল্যবিবাহমুক্ত জেলা হিসেবে মেহেরপুর ইতিহাসের সাক্ষি হয়ে গেল। বাল্যবিবাহমুক্ত মেহেরপুর জেলা ঘোষণার গণ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রি পরিষদের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।
বাল্যবিবাহমুক্ত মেহেরপুর জেলা ঘোষণা অনুষ্ঠানে আজ শনিবার সরকারি বেসরকারি অফিস আদালতের কর্মকর্তা কর্মচারী সহ বিভিন্ন বয়সের ১০ হাজার নারী পুুরুষ বাল্যবিবাহকে না বলে শপথ নিয়েছে। এ উপলক্ষে মেহেরপুর স্টেডিয়াম মাঠে গণ সমাবেশে প্রধান অতিথি আরও বলেন বাল্য বিবাহের মতো মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধেও শপথ নিতে হবে।
জেলা প্রশাসক মোঃ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুস সামাদ বলেছেন ভৌগলিকভাবে জেলা হিসেবে ছোট হলেও ইতিহাসের সাক্ষি মেহেরপুর। মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে বারাক ওবামা, অমর্ত্য সেন বাংলাদেশ নিয়ে কথা বলে। আমরা এভাবে বাল্যবিবাহ, মাদক, সন্ত্রাস প্রতিরোধ করতে পারলে মধ্যম আয়ের দেশ থেকেও অতিক্রম করে যাব।
সেভ দ্য চিলড্রেণ ইন বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর টিম হোয়াইট বলেছেন শত বছর আগে বেগম রোকেয়া বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে একাই লড়াই করেছেন। তার সেই স্বপ্ন আজ মেহেরপুরে বাস্তবায়িত হলো। দুর ভবিষ্যতে সারাদেশ বাল্যবিাহমুক্ত শিশু নির্যাতন বন্ধ ও সবার জন্য শিক্ষা বাস্তাবায়িত হলে এদেশ সোনার বাংলাদেশে পরিণত হবে।
সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেহেরপুর-২ গাংনী আসনের এমপি মোঃ মকবুল হোসেন, সংরক্ষিত মহিলা আসন-৭ এর এমপি সেলিনা আখতার বানু, সমন্বয় ও সংস্কার মন্ত্রি পরিষদ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব এন এম জিয়াউল আলম, প্রধানমন্ত্রীর (জি আই ইউ) এর পরিচালক মোঃ আবদুল হালিম, মেহেরপুরের পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম, জেলা পরিষদের প্রশাসক অ্যাডভোকেট মিয়াজান আলী ও মেহেরপুর পৌরসভার মেয়র মোতাছিম বিল্লাহ মতু।
সমাবেশে মেয়েদের ১৮ এবং ছেলেদের ২১ এর আগে বিয়ে নয় ডিসপ্লে প্রদর্শন করে ৪১ জন ছাত্র ছাত্রি। শেষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গণসমাবেশে উপস্থিতিদের বাল্য বিাহের বিরুদ্ধে শপথবাক্য পাঠ করান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here