বাসা বদল করেও রেহাই পাচ্ছেন না মুন, ফের তলব গোয়েন্দা কার্যালয়ে

0
298

এবার বাসা বদল করেও রেহাই পাচ্ছেন না মডেল ও অভিনেত্রী জাকিয়া মুন। সম্প্রতি পাঁচ কোটি টাকা দামের অবৈধ গাড়ি ব্যবহার করে আলোচনায় আসেন তিনি ও তার কথিত স্বামী ব্যবসায়ী শফিউল আজম মহসিন।  এরপর থেকেই শুরু হয় নানা গুঞ্জন। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে বেগবান হতে থাকে মুখোরোচক এসব গুঞ্জন। মিডিয়া পাড়ায় মুনের লাইফস্টাইল নিয়েও প্রশ্ন ওঠে। এর আগে তাদেরকে তলব করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। এরই মাঝে হাইকোর্টে খারিজ হয় তার রিট। এবার বাসা বদল করেও রেহাই পাচ্ছেন না মুন।  আজ সোমবার বেলা সাড়ে ৩ টায় কাকরাইলে শুল্ক গোয়েন্দা কার্যালয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানা গিয়েছিলো। এ প্রসঙ্গে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান সেই সময় বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, তদন্তের প্রয়োজনে জাকিয়া মুন ও শফিউল আজম মহসিনকে বক্তব্য শুনতে তলব করা হয়েছে। কিন্তু তলবের সমনটি মুনের গুলসানের বাসায় কেউ গ্রহণ করেন নি সেই সময়। সেখান থেকে বলা হয় মুন আর সেই বাসায় থাকেন না। বদল করে চলে গেছেন অন্য ঠিকানায়। এদিকে শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তারাও নাছোড়বান্দা। তারাও নতুন ঠিকানায় বাহকের মাধ্যমে পৌঁছে দিয়েছে মুনের তলবটি। আগামীকাল ফের ডাকা হয়েছে তাকে।  এদিকে, মুন ও তার স্বামী ব্যবসায়ী শফিউল আজম মহসিনের রিট আবেদন খারিজ করেছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি কামরুল ইসলাম সিদ্দিকী এবং বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস কাজল ও রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোখলেসুর রহমান। রিট খারিজ হওয়ার বিষয়টি ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেসুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রিটে মডেল মুন ও তার স্বামীকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের হয়রানি ও গ্রেফতার না করার নির্দেশ চাওয়া হয়। জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ে তারা হাজির হতে ব্যর্থ হলে তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেবে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ। আর তারা যদি শুল্ক গোয়েন্দা কার্যালয়ে হাজির হন, তাহলে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে চাওয়া হবে—কেন এই অবৈধ গাড়ি মডেল জাকিয়া মুন ব্যবহার করেছেন; শুল্ক ফাঁকির এই গাড়ি কেন কিনেছেন তার কথিত স্বামী। এসব প্রশ্নের বক্তব্য গ্রহণযোগ্য না হলে মডেল জাকিয়া মুন ও তার কথিত স্বামী প্যাসিফিক গ্রুপের কর্ণধার ব্যবসায়ী শফিউল আজম মহসিনের বিরুদ্ধে মামলা হতে পারে।  এর আগে গত ৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় রাজধানীর গুলশানে টার্কিশ হোপ স্কুল-সংলগ্ন মডেল জাকিয়া মুনের বাসা থেকে উদ্ধার হওয়া পোরশা মডেলের গাড়িটির মালিক তার কথিত স্বামী শফিউল আজম মহসিন। গাড়িটি উদ্ধারের সময় আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করেন মুন। মিথ্যা ঘোষণা ও শুল্ক ফাঁকি দিয়ে অবৈধভাবে বাংলাদেশে আসা উদ্ধার হওয়া এ গাড়ি প্রসঙ্গে শুল্ক গোয়েন্দা জানিয়েছে, ব্রিটিশ রেজিস্ট্রেশন নম্বর নিয়ে বাংলাদেশে আনা এ গাড়িটি দীর্ঘদিন নজরদারিতে রাখা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here