বাংলাদেশের পরিস্থিতি বেশ জটিল : যুক্তরাষ্ট্র

0
244

ধর্মনিরপেক্ষ লেখক ও সংখ্যালঘুদের ওপর হামলার প্রেক্ষিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, বাংলাদেশের অবস্থা খুবই জটিল এবং জঙ্গি হুমকিটা বাস্তব। শুক্রবার দেশটির স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র মার্ক টোনার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। বাংলাদেশে ধর্মনিরপেক্ষ লেখক, প্রকাশক ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর নিয়মিত হামলার প্রেক্ষিতে মার্ক টোনার বলেন, বাংলাদেশে বেশ জটিল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। আমরা সরকারের কাছে আহ্বান জানাই যারা এই নৃশংস আক্রমণ ও হত্যাকাণ্ডের পেছনে আছে সেটি তদন্তের মাধ্যমে চিহ্নিত করা হোক।   গত সোমবার সমকামীদের অধিকার নিয়ে কাজ করা জুলহাজ মান্নানকে তার বন্ধু সহ বাড়িতে হত্যা করা হয়। এর আগে ২৩ এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকী ও ৬ এপ্রিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের ছাত্র সামাদকে হত্যা করা হয়। গত ফেব্রুয়ারিতে হত্যা করা হয় একজন হিন্দু পুরোহিতকে। গত সেপ্টেম্বরে ঢাকায় হত্যা করা হয় দাতব্য সংস্থায় কর্মরত ইতালিয়ান নাগরিক সেজারে তাভেল্লাকে। এর পাঁচ দিনের মধ্যে উত্তরবঙ্গে হত্যা করা হয় জাপানি নাগরিক কুনিও হোশিকে।   এসব হত্যাকাণ্ডের দায় আল-কায়েদা কিংবা ইসলামিক স্টেট স্বীকার করেছে। কিন্তু সরকার বরাবরের মতো বলে আসছে কোনো আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন এসব হামলার পেছনে নয়, বরং দেশীয় উগ্রপন্থীরা রয়েছে এর পেছনে। এই প্রসঙ্গে মার্ক টোনার বলেন, বেশ কয়েকটি জঙ্গি প্রতিষ্ঠান এসব হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করেছে। আমাদের এই দায় স্বীকারের ঘটনাগুলো বিশ্বাস করার কোনো যুক্তি নেই। তবে এটা পরিষ্কার যে হুমকিটা বাস্তব। আমরা দেখেছি গত কয়েক সপ্তাহে বেশ কয়েকটি নৃশংস হত্যাকাণ্ড। আমরা দেখতে চাই সরকার নাগরিকদের সুরক্ষায় সম্ভব সব পদক্ষেপ নিয়েছে।   বৃহস্পতিবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করেছিলেন। এই প্রসঙ্গে টোনার বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাম্প্রতিক আক্রমণগুলোর ঘটনার তদন্তে মার্কিন সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছেন। নিহত জুলহাজ আমাদের কর্মী ছিল (ইউএসএআইডি এ কাজ করতেন জুলহাজ)। টোনার বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাম্প্রতিক ও অন্যান্য আক্রমণ ও হত্যাকাণ্ডের পূর্ণাঙ্গ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন। যাদের ওপর ঝুঁকি আছে বলে আমরা মনে করি সেই ব্যক্তিদের নিরাপত্তা দ্বিগুণ বৃদ্ধির আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here